হোমনায় মাদক ব্যবসায় বাধা,সংঘর্ষ, নারীসহ আহত-১২

455

চ্যানেল ব্রাহ্মণবাড়িয়া ডেস্কচ্যানেল ব্রাহ্মণবাড়িয়া ডেস্ক: কুমিল্লার হোমনায় মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় পক্ষে নারীসহ কমপক্ষে ১২ আহত হয়েছে। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার ভাষানিয়া ইউনিয়নের নয়াকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তিন জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে ।
এই ঘটনায় একই গ্রামের .বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে ২৬ জনকে আসামী করে হোমনা থানায় মামলা করেছে । মামলায় মো. আমিন(২৬), জহিরুল ইসলাম(২৩), রিয়াজুল প্র রিয়াজ(২০) নামে ৩ জন আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে । পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গত ২০ এপ্রিল নয়াকান্দি গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী রুবেল মিয়ার ৩ সহযোগীকে মাদকসহ আটক করে পুলিশে দেয় গ্রামবাসি ।পুলিশের নিকট মাদক ব্যবসায়ীরা রুবেলের নিকট বিক্রি করতে আনার কথা স্বীকার করে । পরে পুলিশ রুবেলকে মাদক মামলায় গ্রেফতার করে । সে বর্তমানে জেলা হাজতে আছে । এ নিয়ে রুবেলের ভাই,ভাতিজা ও তার সহযোগীদের সাথে আওলাদ হোসেন, রাসেল, বিল্লাল হোসেনের মধ্যে বিরোধ চরম আকার ধারন করে। এ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বুধবার(২৭ মে) নয়াকান্দি ইটভাটার মালিক আওলাদ হোসেন ও রাসেল মিয়া শ্রমিকের বেতন দেয়ার জন্য ১১ লাখ টাকা নিয়ে বাড়ি থেকে বাহির হলে আসামীরা পূর্ব পরিকল্পনা মতে দেশীয় অস্ত্র ণিয়ে তাদের আক্রমন করে এতে আওলাদ হোসেনকে কুপিয়ে জখম করে ১১ লাখ টাকা ছিনাইয়া নেয়। রাসেল পালিয়ে গিয়ে বাড়িতে খবর দিলে আওলাদকে বাচাইতে গ্রামবাসি আগাইয়া আসলে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয় । এতে নারীসহ কম পক্ষে ১২ জন আহত হয় । আহতদের হোমনা হাসপাতালে ভতি করা হয়েছে । আওলাদ হোসেন, আক্তার হোসেন ও শরীফকে ঢাকায় পেরণ করা হয়েছে । আহতরা হলো মো. আওলাদ হোসেন(৪১), মো. শরীফ(২৪), মো. আক্তার হোসেন(৩৩), মো. সোহেল(৩০), রোশন মিয়া(৭০), জহিরুল ইসলাম(২৩),জামান মিয়া(৪৫), শহিদ মিয়া(৪৫), আনোয়ারুল ইসলাম(২২), আমিন(২৬), রিয়াজুল (২০) ও রুবি আক্তার(৪৫)
হোমনা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল কায়েস আকন্দ বলেন, মাদক ব্যবসা নিয়ে পূর্বশক্রতার জের ধরে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে এতে ১০/১২ জন আহত হয়েছে । থানায় মামলা হয়েছে ৩ জনকে গেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে । বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে ।