১০৭ বছরের নারীর কাছে পরাজয় হল করোনার

501

করোনাভাইরাসে প্রবীণ মানুষদের ভয় সবচেয়ে বেশি, প্রবীণদের মৃত্যুর সংখ্যাও অন্যদের তুলনায় বেশি বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা। কিন্তু এমন কিছু উদাহরণ সামনে আসছে, যা আশার আলো জাগিয়ে রাখছে। কিছু দিন আগে ১০৩ বছরের এক নারী করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার খবর পাওয়া গিয়েছিল। এবার তার চেয়েও চার বছরের বড় এক নারী করোনাকে হারিয়ে দিলেন।

কয়েক সপ্তাহ আগে ইরানে ১০৩ বছরের ওই নারী করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন। তারপর ৯৯ বছরের রিটা রেনল্ডস ইংল্যান্ডের সবচেয়ে প্রবীণ ব্যক্তি হিসেবে করোনাভাইরাসকে জয় করেন। এ ছাড়া ইতালির আমলা ক্লারা কোরসিনি নামে ৯৫ বছরের এক নারী গত ৫ মার্চ হাসপাতালে ভর্তি হন। পরীক্ষায় তার করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। তিন সপ্তাহেরও কম সময়ে তিনি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেন। এবার তাদের সবার রেকর্ড ভেঙে দিলেন এক ডাচ নারী। কর্নেলিয়া রাস নামের ওই নারী সম্প্রতি ১০৭তম জন্মদিন পার করেন। পরের দিনই তিনি অসুস্থ হয়ে নেদারল্যান্ডসের এক নার্সিং হোমে ভর্তি হন। পরীক্ষায় তার করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। নার্সিং হোমে চিকিৎসা চলতে থাকে রাসের। প্রায় আড়াই সপ্তাহে তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে শুরু করে। পরে চিকিৎসকরা জানান, তিনি করোনাভাইরাসমুক্ত। এখনও গোটা বিশ্ব থেকে যে খবরগুলো সামনে এসেছে, তাদের মধ্যে এ নারীই সবচেয়ে বেশি বয়সে করোনাভাইরাস থেকে সেরে উঠলেন।