নিখোঁজের ১৮দিন পরও সন্ধান মেলেনি অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী প্রীতির

441

কুমিল্লার মেঘনায় নিখোঁজের ১৮ দিন পরও সন্ধান মেলেনি মানিকার চর এল এল উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী প্রীতি আক্তার (১ ৫) এর। গত ২৩ জুন সকালে নিজ বাড়ী টিটিরচর থেকে নানার বাড়ি মাতাব্বের কান্দি যাওয়ার পথে সে নিখোঁজ হয়।এই ঘটনায় স্কুল ছাত্রীর বাবা গত ২৬ জুন মেঘনা থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন।১৮ দিন পেরিয়ে গেলেও স্কুল ছাত্রী প্রীতির সন্ধান না পাওয়ায় তার পরিবার এবং আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে চরম উৎকন্ঠা বিরাজ করছে।।
সাধারন ডায়েরি ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার টিটিরচর গ্রামের খোরশেদ মিয়ার মেয়ে প্রীতি আক্তার তার নানার বাড়ি মাতাব্বের কান্দি থাকত এবং মানিকার চর এল এল উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়াশেনা করে।ঈদের ছুটি শেষে গত ২৩ জুন সকালে নিজ বাড়ী টিটিরচর থেকে নানার বাড়ি মাতাব্বের কান্দি যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয় সে।প্রীতির বাবা মা আত্মীয় স্বজনের বাসায় খোঁজ নিয়ে কোথাও না পেয়ে পরে গত ২৬ জুন মেঘনা থানায় তার বাবা খোরশেদ আলম একটি সাধারণ ডায়েরি করে। নিখোঁজের ১৮ দিন পেড়িয়ে গেলেও প্রীতির সন্ধান না পাওয়ায় তার পরিবার এবং আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে চরম উৎকন্ঠা বিরাজ করছে।
স্কুল ছাত্রীর বাবা খোরশেদ আলম জানান, ঈদের ছুটিতে প্রীতি তার নানার বাড়ি থেকে টিটির চরে আসে ছুটি শেষ হলে গত ২৩ জুন রোববার সকাল সাওে আটটার দিকে তার নানার বাড়ি উদ্দেশ্যে বাড়ী থেকে রওয়ানা হয় কিন্তু তার নানার বাড়িতে না যাওয়ায়, আমি আমাদের নিকট আত্মীয় স্বজনের বাড়ীতে খোঁজ নিয়ে কোথাও না পেয়ে ২৬ জুন মেঘনা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করি। আমার মেয়েকে অপহরন করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।১৮দিন হয়ে গেলেও এখনও সন্ধান পাইনি আমার মেয়ের,আল্লাহ জানেন কেমন আছে আমার মেয়ে।
মানিকার চর এল এল উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আবদুল্লা-আল মামুন জানান,আমাদেও স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী প্রীতি আক্তার নিখোঁজ রয়েছে বলে শুনেছি ,তার বাবা স্কুলে এসে আমাদের জানিয়েছে নিখোঁজের বিষয়টি।
ৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃমেঘনা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল মজিদ বলেন,স্কুল ছাত্রী নিখোঁজের ঘটনায় তার বাবা থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেছে। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি এবং উদ্বারের চেষ্ঠা চালাচ্ছি ।